মাতৃদিবস

মাতৃদিবস

বারো মে (12, May) আন্তর্জাতিক মাতৃদিবস। কত আলোচনা, সভা সমিতি, অনুষ্ঠান প্রভৃতির মাধ্যমে দিনটি বিভিন্ন ভাবে পালিত হয়।বহু মহাপুরুষদের বাণী ও জীবন আলোচনা হয়। হজরত মোহাম্মদ (সঃ) বলেন, “মায়ের পায়ের তলায় সন্তানের বেহেস্ত।” একবার এক যুবক হজরত(সঃ)এর কাছে বায়াত হতে এলেন (দীক্ষা নিতে এলেন)। কিন্তু যুবক বারবার চেষ্টা করেও কলমা (মন্ত্র) সঠিক উচ্চারণ করতে পারছে না। তখন হজরত (সঃ) তাকে জিজ্ঞেস করলেন বাড়িতে তার কে আছেন। যুবক যখন জানায় যে, বাড়িতে তার মা আছেন তখন হজরত (সঃ) যুবকটিকে বললেন, “বাড়ি গিয়ে কিছু দিন মায়ের সেবা কর।তারপর আবার আমার কাছে এসো। তখন সঠিক উচ্চারণ করতে পারবে।” হজরত (সঃ)বুঝতে পারলেন যে তার মাতৃসেবায় এমন ত্রুটি আছে যে, সে কলমাও (মন্ত্র) শুদ্ধভাবে উচ্চারণ করতে পারছে না। প্রত্যেক মানুষের কাছে তার মায়ের মূল্য অপরিমেয়। এমন একটি দিন নেই যে আমার মা কে আমার মনে পড়ে না। সেদিনটি আমার খুব মনে পড়ে যেদিন আমার মা আমার সামনে থেকে ধীরে ধীরে চলে গেলেন। মায়ের পায়ে হাত দিয়ে অপলক তাকিয়ে আছি মায়ের মুখ পানে। একটি বিস্ময়কর মহামুহূর্ত এল। মায়ের স্পন্দন স্তব্ধ হল। আমার জীবনের সর্বোচ্চ স্বরে নিজের কান্না আমি শুনতে পেলাম। অশ্রুধারায় চারিদিক অস্পষ্ট। বুঝলাম আমি মাতৃহারা। মনে হল পৃথিবীটা ভরশূন্য। আমি ঝরা পালকের মতো উড়ে যাচ্ছি। আমাকে ধরার কেউ নেই। সেদিন মনে হল পৃথিবীতে যাদের মা নেই তারা কত অসহায়, যাদের মা আছে তারা কতই না ভাগ্যবান। মা-ই পৃথিবী। ভূমিষ্ট সমস্ত জীবই মাতৃনির্ভর। মাতৃস্নেহের কোনও সংজ্ঞা হয় না। সন্তানের প্রতি মায়ের কোনও শর্ত নাই, কারণ ঈশ্বর সমস্ত মায়ের হৃদয় সন্তানের জন্য নির্মল করে রেখেছেন। জৈবিক বয়স যতই বাড়ুক, মা – সন্তানের বয়স বাড়ে না। আমি মাতৃহারা হয়ে প্রথম যেদিন বাড়ির বাইরে গেলাম সে এক দুঃস্বপ্নের দিন। এতদিন ধরে মা ডাকে বাড়ি ঢোকতাম। আজ মা নাই, বাড়ি ঢোকার সময় মুখে কোনও শব্দ খুঁজে পাই না।মাতৃহীন গৃহ যেন প্রাণহীন বাড়ি। এখন আমি আমার মতো করে মাকে প্রতি মুহূর্তে কাছে পাই। মা ছাড়া আমার কোনও অস্তিত্ব নাই। গ্রামের মাটিতে মা শায়িত আছেন তাই এই গ্রামের মাটি আমার পুণ্যভূমি। মায়ের কবরের পাশে গিয়ে জিয়ারত করি। হৃদয়ে প্রশান্তি নিয়ে ফিরে আসি। প্রতিদিন আমার মাতৃদিবস। প্রতি মুহূর্ত আমার মাতৃমুহূর্ত।



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *